বর্ষায় ফাগুন

বৃষ্টি পড়িছে
ধরণী  ভিজিছে
বিকেলে নেমেছে সাঁঝ;
আকাশের পেটে
গুড়ুম গুড়ুম
ডাকিছে ভীষণ বাজ।

ভিজে ভিজে সব
শুকনো ভূমিরা
কেঁদে কেঁদে হলো কাদা;
ভেসে গেল সব
ঘাঁট মাঠ তবু
আকাশ হলো না সাদা।

সন্ধ্যা হতেই
ব্যাঙের ডাকুনি
“ঘ্যাঙর ঘ্যাঙর” রবে;
কাল ভিজেছে
আবার ভেজাবে
খুশিতে মেতেছে সবে।

ভোর হয়েছে
ঘুম ভেঙেছে
খুকু খুলেছে দোর;
সারা রাত্রি
আকাশ কাঁদিয়ে
বৃষ্টি ধারা অঝোর।

বিকালের মত
সকাল হয়েছে
রোদ ডুবু ডুবু পূবে;
খেতের জমিতে
বালকের দল
সাঁতার কাটিছে ডুবে।

খ্যাপলা জালে
বিলের জলে
মাছ মারাদের ধুম;
টিনের চালে
বৃষ্টি বিলাস
জমিয়ে হবে ঘুম।

কালো কাদা আর
সাদা জল মিলে
সবুজ তেপান্তর;
বর্ষা যেন
নব ফাগুনের
ভেজা কলেবর।

কমেন্ট করুন
প্রাক্তন শিক্ষার্থী | পরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়