বাংলাদেশের জনজীবন

বাংলাদেশে জন্ম আমার,
বাংলায় কথা বলি।
সহজ-সরল জীবনযাপন,
সহজভাবে চলি।

নানান রকম মানুষ আছে,
নানান রকম কবি।
ধনী-গরীব জাত-ভেদাভেদ,
নিত্যদিনের ছবি।

সাদা-কালো রুপ ভেদাভেদ,
প্রতিদিনই শুনি।
আমরা সবাই মানুষ জাতি,
কয়জনেই বা মানি।

আমার দেশের জেলে চাষা,
কামার,কুমোর,তাতী।
তারাই আসল মহানায়ক,
উন্নতির চাবিকাঠি।

মিলেমিশে থাকি সবাই,
সুখে দুঃখে পাশে।
কারো ঘরে দুঃখের অনল,
কেউবা সুখে হাসে।

হেসে খেলে জীবন চলে,
বলে মাঝি ভাই।
মানিয়ে নেবার ধৈর্য থাকলে,
সুখের কমতি নাই।

পুকুর ভরা মাছ আর,
গোয়াল ভরা ধানে।
কৃষক হাসে বুক ফাটিয়ে,
মুক্তমনা প্রাণে।

টাকার খেলা নিত্যনতুন,
টাকার পিছে সবাই।
এতকিছু পাওয়ার পরেও,
আরো আমাদের চাই।

শ্রমিক মজুর ধনী-গরীব,
আমরা সবাই মানুষ।
কেউ বুঝে না কেউ মানে না,
দম ফুরালেই ফানুশ।

ঘাম ঝরিয়ে দেশটাকে আজ,
দাঁড় করালো যারা।
দিনের শেষে অবহেলাই,
গিলে খাচ্ছে তারা।

দূর্নীতি আর পঁচা মগজ,
ভরে গেছে দেশে।
মুখোশের আড়ালে অমানুষ সবাই,
থাকে মানুষ বেশে।

বিচার কার্যে টাকাই প্রধান,
সুষ্ঠু বিচার কিসে।
ভাবতে ভাবতে সন্ধ্যে হলো,
জীবন গেলো ধ্বসে।

কেটে যাচ্ছে জীবদ্দশা,
চলে যাচ্ছে বেশ।
কত মানুষ কত রকম,
ধরতে পারে বেশ।

বাংলাদেশের জনজীবন,
অতি সাধারণ ভাই।
খেয়ে-দেয়ে জীবন কাটাই,
সুখের কমতি নাই।

কমেন্ট করুন
শিক্ষার্থী | পরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়