নৈর্ব্যক্তিক প্রেম

প্রেম এসেছিলো
তোমার ঐ কালো মুখের স্নিগ্ধ চোখে
এসেছিলো
শুকনো খেজুরের ন্যায় তোমার অধরে
এসেছিলো
উত্তপ্ত রোদে নির্লিপ্ত সলজ্জ চাহনিতে
এসেছিলো
তোমার মাথার জটলা ধরা ঐ কুন্তলে
এসেছিলো
ভৈরবের ঐ ঘূর্ণি বাতাসে
এসেছিলো
প্রসারিত বৃক্ষতলে নিশ্চুপ দাঁড়ানো ঐ ভরদুপুরে
এসেছিলো
সিএনজির এর ছুটে চলায়
এসেছিলো
উড়ো নম্বরের হাওয়ার ভেসে
এসেছিলো
বাটন-ফোনের ছোট্ট স্ক্রিনে ঘন্টার কাটায়
প্রেম মরেছিলো
মডার্ন মোড়ের ঐ গুপচি গলিতে
মরেছিলো
বৃষ্টির জলে ভিজে থাকা রূপসার ঘাটে
মরেছিলো
দিন-ফুরানো অন্ধকারে স্কুল মাঠে নিঃশব্দ গগনবিহারীতে
মরেছিলো
বাসের জানালা দিয়ে চেয়ে থাকা গোপালগঞ্জে
মরেছিলো
রাতের বিছানায় কাপড় গোজা মুখের গোঙানিতে
মরেছিলো
হাজারো অপেক্ষমাণ টেক্সট আর ব্লক লিস্টে থাকার ঘোরে
মরেছিলো
পরীক্ষা পূর্বের আকুল মিনতিতে
মরেছিলো
হঠাৎ কোনো মুহূর্তের ইশারায় লনে, নয়তো ছাদে
মরেছে তো!
মরতে গিয়ে নিজের শুদ্ধ সত্তাকেও মেরেছে
সেই শুদ্ধতার খোজে আজও আর্তনাদ ওঠে
গভীর রাতের ঘুমন্ত নগরে নগ্নতায় ছেয়ে যায় অপ্রাপ্তি!

কমেন্ট করুন
প্রাক্তন শিক্ষার্থী | সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, চুয়েট

0