শ্রাবণধারা

শ্রাবণ মাসের বৃষ্টির কোন ঠিক ঠিকানা নেই
হঠাত করে ঝুমঝুম করে পড়তে শুরু করে।
তারপর আর থামার নাম নেই।
আমাদের ছোট নদীর সাথে পাল্লা দিয়ে
পাশ দিয়ে বয়ে চলা মেঠোপথ ধরে
ছুটে চলা গরুর গাড়িকে
মুহূর্তের মধ্যে ভিজিয়ে দেয় —
এমন চঞ্চল বৃষ্টি।
চাকার কর্কশ শব্দে ছেদ পড়ে যায়
হাঁটু কাদায় আঁটকে গিয়ে।

এক শ্রাবণে পাওয়া নীল খামের চিঠিগুলো
আরেক শ্রাবণে নৌকা বানিয়ে ভাসিয়ে দেয় —
অভিমানী প্রেমিক। উপযুক্ত শ্রাবণের ধারা দেখে
অস্ত যায় একজীবন ধরে বৃষ্টির কবিতা লেখা রবি।
এমন করেই চলে যাচ্ছে প্রতি শ্রাবণের বাইশ তারিখ।

কমেন্ট করুন

সাকিব ইবনে সালাম

সেশন - ২০১১ - ২০১২

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.