সম্পাদকীয় অগাস্ট ২০১৯

প্রিয় পাঠক, আপনাকে ঈদের শুভেচ্ছা। ডেঙ্গু যেভাবে মহামারি আকার ধারণ করেছে, তাতে সাধারণ মানুষের ঈদের আনন্দ ম্লান হতে চলেছে। সিটি কর্পোরেশনগুলি সময়মত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছে বলে মানুষের এই ভোগান্তি। ডেঙ্গু ভয়াবহ রূপ ধারণ করার পরে তারা মশার ঔষধের কার্যকারিতা যাচাই করতে শুরু করেছে। আশা করি তাদের অযোগ্যতা ও গাফিলতি সত্ত্বেও এই মহাবিপদ থেকে পরিত্রাণ পেয়ে আমরা ঈদ উদযাপন করতে পারবো।

ঈদের পরেই আসছে বেদনাবিধুর ১৫ আগস্ট। বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারকে নির্মমভাবে হত্যা করে যারা আস্ফালন করেছিলো, আজ তারা ইতিহাসের আঁস্তাকুড়ে। তবে, এখনও কিছু লোক আওয়ামী লীগ বা সরকারের বিরোধিতা করতে গিয়ে বঙ্গবন্ধুর অসম্মান করেন। বঙ্গবন্ধুকে তাঁর আসন থেকে নামিয়ে আওয়ামী লীগের সমার্থক করে ফেলাটা আমাদের চিন্তাশক্তির দৈন্য। কার্যকর বিরোধী দল নেই বলে সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করা প্রত্যেক নাগরিকের নৈতিক দায়িত্ব। কিন্তু, সেই সমালোচনাকে বঙ্গবন্ধুর অবমাননা পর্যায়ে আমরা যেন নিয়ে না যাই।

ডেঙ্গু, ঈদ, জাতীয় শোক দিবস – সব কেমন যেন একাকার হয়ে গেল এ বছর।

কমেন্ট করুন

প্রাক্তন শিক্ষার্থী

পরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

সেশনঃ ১৯৮৩ - ৮৪

জাফর আহমেদ খান

প্রাক্তন শিক্ষার্থী পরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সেশনঃ ১৯৮৩ - ৮৪

0