সম্পাদকীয় – ফেব্রুয়ারি ২০২২

বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রেডিং সিস্টেম খুবই অমানবিক।

একজন ছাত্র যদি কোনও কোর্সে ১০০ এর মধ্যে ৩৯ পায়, তাহলে ‘ফেল’ করাতে ঐ কোর্সে তার Grade Point ধরা হয় ‘০.০০’ (শূন্য)। কিন্তু, যদি ৩৯.৫ পায়, তাহলে রাউন্ড আপ করে তার নম্বর দাঁড়ায় ৪০, এবং ‘পাশ’ করাতে তার Grade Point ধরা হয় ‘২.০০’ (দুই)।

ছাত্রটির কপাল মন্দ হলে একটি কোর্সে Grade Point ‘০.০০’ পাওয়াতে তার GPA ২.৫০ এর কম হয়ে যেতে পারে এবং সে ডিগ্রী নাও পেতে পারে! অথচ, কোর্সটিতে ৩৯.৫ পেয়ে Grade Point ‘২.০০’ পেলে হয়তো তার GPA দাঁড়াতো ২.৫০ এর বেশি এবং সে কাঙ্ক্ষিত ডিগ্রীটা পেয়ে যেতো!

আধা নম্বরের জন্য কখনও কখনও একজন ছাত্রের জীবন থেকে একটা বছর হারিয়ে যায়!

কোর্স-শিক্ষক এখানে অসহায়। Two-examiner system হওয়াতে কোর্স-শিক্ষক হয়তো ব্যাপারটা জানতেও পারেন না। জানলেও তাঁর কিছু করার থাকে না।

যে দুজন শিক্ষক টেবুলেশন করেন, হাহাকার করা ছাড়া তাঁদেরও কিছু করার নেই। আগে গ্রেস নম্বরের বিধান ছিলো, এখন তা নেই।

আমাদের উচিৎ নতুন করে ‍চিন্তা করা।

কমেন্ট করুন

প্রাক্তন শিক্ষার্থী

পরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

সেশনঃ ১৯৮৩ - ৮৪

জাফর আহমেদ খান

প্রাক্তন শিক্ষার্থীপরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সেশনঃ ১৯৮৩ - ৮৪