কৃতঘ্নতার তোপধ্বনি

তোমায় ঘিরে প্রাণ ফোটে মা
স্বস্তি মেলে তোমার তলে
প্রথম যখন প্রাণবায়ুতে
তোমার ছোয়ায় আঁখি মেলে।
আগমনের ভিন্নতাতে
সাম্যতারই বার্তা হাতে
দূর্ভেদ্য সেই জীবন কোষে
জিতিয়ে তোমার দান।
হোক সে কোন অট্টালিকা
নয়তো কোনো গুহার কোঠা
তোমায় ছাড়া রিক্ত সেথায়
বাচিঁয়ে কেবা প্রাণ!
প্রাণবায়ুকে ধরে রেখে
মৌলিক চাহিদার সঙ্গী থেকে,
বাড়িয়ে তাদের জীবন স্রোতে
খুইয়ে নিজের শান।
সভ্যতার আজ নগ্ন খেলায়
তোমারি পোষ্যের সুখের মেলায়
হীন হয়ে এবার তোমায় দিতে হবে দান।
যারে তুমি আগলে ধরে,
রেখেছ বিপদ আপন করে
অকাতরে দিয়ে গেছ নিজের বলিদান।
নিজের পোষ্যের চরণতলে,
সভ্যতার এই রঙিন ছলে
দ্বিধাদ্বন্দ্বের পর্দা ঠেলে
তোমারে করবে অপমান।
সভ্যতার চম্পূকাব্যে তুমি নিছক গদ্য
উন্নয়নের ফেনিল স্রোতে হয়ে আজ অখাদ্য!

কমেন্ট করুন
প্রাক্তন শিক্ষার্থী | সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, চুয়েট

0