সম্পাদকীয় – জুন ২০২২

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে এ পর্যন্ত ৪৪ জন নিহত ও দুই শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে নয়জন ফায়ার সার্ভিসের সদস্য রয়েছেন। তাঁরা যখন আগুন নেভানোর আপ্রাণ চেষ্টা করছিলেন, তখন হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড ভর্তি কনটেইনার ‍বিস্ফোরণে তাঁদের মৃত্যু হয়েছে। কনটেইনারে রাসায়নিক থাকার কথা মালিকপক্ষ ফায়ার সার্ভিসকে জানায়নি।

পুলিশ ডিপোর ৮ জন কর্মকর্তাকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। মালিকপক্ষকে কেন এখনও আসামী করা হয়নি, তা বোধগম্য নয়।

আগুন নেভাতে ৮৬ ঘন্টা (৩ দিন ১৪ ঘন্টা) সময় লেগেছে। এ কারণে ধারণা করা যায়, রাসায়নিক থেকে উদ্ভুত আগুন নেভানোর প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদেরকে দেয়া হয়নি।

আবারও বোঝা গেল, শুধু অর্থনৈতিক উন্নয়নই দেশের জন্য যথেষ্ট নয়। জানমালের নিরাপত্তাসহ সার্বিক উন্নয়নে আমাদেরকে সচেষ্ট হতে হবে।

কমেন্ট করুন

প্রাক্তন শিক্ষার্থী

পরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

সেশনঃ ১৯৮৩ - ৮৪

জাফর আহমেদ খান

প্রাক্তন শিক্ষার্থীপরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সেশনঃ ১৯৮৩ - ৮৪

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.