সম্পাদকীয় – এপ্রিল ২০২১

সত্যিই দু’বছর হয়ে গেল! বিশ্বাস হচ্ছে না! প্রিয় পাঠক, আন্তরিক শুভেচ্ছা।

১৯৯৯ সালে পত্রিকাটি যাদের হাত ধরে ‘প্যাপিরাস’ নামে পথ চলা শুরু করেছিলো; ২০১৫ সালে যাদের হাতে পত্রিকাটি ‘প্যাপাইরাস’ নামে পুনর্জন্ম লাভ করেছিলো এবং সবশেষে যাদের উদ্যোগ, পরিশ্রম ও সহযোগিতায় ২০১৯ সালের এপ্রিলে অনলাইনে যাত্রা শুরু করে পত্রিকাটি প্রতি মাসে নিয়মিত প্রকাশিত হচ্ছে – সবাইকে প্রাণঢালা অভিনন্দন।  

‘প্যাপাইরাস’-কে শুভ কামনা জানিয়ে মে ২০১৯ সংখ্যার সম্পাদকীয়তে একটি ‘অ্যাক্রস্টিক সনেট’ লেখা হয়েছিলো। কবিতাটির প্রত্যেক লাইনের প্রথম অক্ষর একত্র করলে দাঁড়ায়: ‘প্যাপাইরাস পত্রিকা চিরজীবী হোক’। পত্রিকার নতুন পাঠকদের জন্য কবিতাটি এখানে তুলে দেয়া হলো:

প্যাডেল মেরেছি শুধু, ঘোরেনি তো চাকা;
পাইনি তো খুঁজে পথ অচিন শহরে;
ট-রড-কংক্রিটে শুধু বেঁচে থাকা –
রাহুগ্রাসে পড়ে মন হা-হুতাশ করে।
মব্যথী সমতটী, এসো দ্বিধা ফেলে
থ খুঁজে পথ চলি সতেজ সরব;
ত্রিকালের বেড়া ভেঙে নবদীপ জ্বেলে
কালজয়ী পাতা খুলে সাজাই হরফ।

চিনহীন পদাঘাতে যেটুকু কাঁপন,
য়ে যাক তার রেশ হারে কিবা জিতে;
জীবনের নামে কেন মরণ যাপন?
বীজ বুনি স্বপনের, পাথুরে জমিতে;
হোক না নিয়তি পর, তবুও আপন –
ণা-সম ঠাঁই দিলে শেষের সারিতে।

প্রিয় পাঠক, ‘প্যাপাইরাস’-এর সাথে থাকুন। সবাইকে পবিত্র রমজান মাসের শুভেচ্ছা।

কমেন্ট করুন

প্রাক্তন শিক্ষার্থী

পরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

সেশনঃ ১৯৮৩ - ৮৪

জাফর আহমেদ খান

প্রাক্তন শিক্ষার্থীপরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সেশনঃ ১৯৮৩ - ৮৪